E-mail

ই-মেইলঃ

তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে মানুষ অনেকটাই তথ্যনির্ভর হয়ে পড়েছে। তাছাড়া কর্মব্যাস্ততার কারনে মানুষ তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তা নিচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন তথা ইন্টারনেট প্রসারে বাংলাদেশের প্রভুত উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। ইন্টারনেট নির্ভরতার এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ইতোমধ্যে ব্যাপকভাবে নতুন কর্মপরিবেশ সৃষ্টি এবং বাংলাদেশের উৎপাদিত পন্য সমুহের বিশ্ববাসীকে প্রদর্শনের নিমিত্তে দেশীয় ই-কমার্স এগিয়ে চলেছে দুর্বার গতিতে। দেশবাসীও অংশগ্রহন করছে অনলাইন কেনাকাটায়। যদিও অনলাইন অর্ডার প্রক্রিয়া সম্পর্কে সাধারন মানুষ এখনো ধারনা লাভ করতে পারেনি তথাপি যারা ই-কমার্স ওয়েব সাইটের মাধ্যমে এই পন্যসেবা দিয়ে আসছে ক্রেতার নিকট থেকে তারা নাম, ঠিকানা, ফোন নং নিয়ে অর্ডার করিয়ে পন্যটি পাঠিয়ে দিচ্ছেন। বেশিরভাগ ওয়েবসাইটে অর্ডার প্রকৃয়াতে একটি ই-মেইল ঠিকানা আবশ্যক। কিন্তু তা অনেকেরই না থাকায় ব্যবহার করা সম্ভব হয়না।
প্রয়োজনীয়তাঃ
১। ই-মেইল সহ কোন পন্যের অর্ডার করলে সাথে সাথে ক্রেতা অর্ডার নং সহ ভাউচার পেয়ে যাবেন।
২। ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান তাদের নতুন সেবা সম্পর্কে জানাতে পারবেন।
৩। অর্ডারের সময় যে ভাউচারটি পেলেন বুকিংয়ে তার থেকে মূল্য বেশি আছে কিনা তা জনাতে পারবেন।
৪। আপনার সার্ভিস পেতে কোন সমস্যা হলে মে-ইলের মাধ্যমে সহজে যোগাযোগ করতে পারবেন।
কিভাবে করবেনঃ
গুগল এবং ইয়াহুতে ই-মেইল অতি সহজেই খোল যায়। মে-ইল অপশনে প্রবেশ করে ক্রিয়েট একাউন্ট অপশনে গিয়ে আপনার ব্যাক্তিগত প্রয়োজনীয় তথ্যাদী পুরন করলেই গুগল বা ইয়াহু আপনাকে একটি মেইল ঠিকানা দিয়ে দেবে একেবারে ফ্রিতে।
ধন্যবাদ সবাইকে।