Export Import Meet up

সম্মানিত ক্ষুদ্র ও মাঝারি ইকমার্স উদ্যোক্তাবৃন্দ,

 

বাংলাদেশের অন্যতম ইকমার্স মার্কেটপ্লেস “অল মার্কেট বিডি” এর উদ্যোগে আগামী ২২ ডিসেম্বর ২০১৭ রোজ শুক্রবার দিনব্যাপী (১০.০০ এ এম – ৫.০০ পি এম) ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সার্বিক অবস্থা বিবেচনায়  আমদানি রপ্তানি বিষয়ক মিট আপ এর আয়োজন করা হয়েছে। সাথে থাকবে ডাটা ড্ৰাইভেন ইকমার্স মার্কেটিং এর উপর স্পেশ্যাল সেমিনার।

সেমিনারের আয়োজনে থাকছেঃ

১। ১০:০০ এ এম : উদ্বোধনী

২। ১০:৩০ এ এম : সেমিনার অন “ডাটা ড্রাইভেন ইকমার্স মার্কেটিং”

                           সেমিনার বক্তা : দেবজিৎ দত্ত, ইকমার্স স্পেশালিস্ট (সার্টিফাইড),

৩। ১:০০ পি এম : প্রেয়ার, লাঞ্চ

৪।  ২:০০ পি এম : কিভাবে চলবে আমাদের ক্ষুদ্র ও মাঝরি উদ্যোক্তাদের আমদানী রপ্তানী।

                          বক্তা: আমদানী ও রপ্তানীকারক অনিতা সাহা, কলকাতা।

৫। ৩:০০ পি এম : আমদানি রপ্তানির নিরাপদ লেনদেনের দিক নির্দেশনা,

                         বক্তা: প্রশান্ত মন্ডল, অল মার্কেট বিডি।

৫। উপস্থিত সদস্যদের মাঝে থেকে প্রশ্নোত্তর পর্ব এবং তাদের কোন মতামত থাকলে তার উপস্থাপনা।

 

আপনাদের উদ্যেগকে এক ধাপ সামনে অগ্রসর করতে আমাদের ক্ষুদ্র প্রয়াস। বাংলাদেশের ইকমার্স উদ্যোক্তাদের এক বৃহৎ অংশ হচ্ছে ২০-৩০ বছর বয়সী যুবক যুবতী, আর এদের অনেকেরই মূলধন যথেষ্ট কম। বাংলাদেশে ই-কমার্স ব্যবসা অগ্রসর হচ্ছে মুলত হাতের কাছে না পাওয়া বিশেষ কিছু পন্যের উপর ভর করে। পন্য গুলোর মধ্যে ইন্ডিয়া থেকে আমদানী নির্ভর পন্যের  সংখ্যাও অনেক বেশি। যারা স্বল্প পরিসরে স্বল্প বিনিয়োগে ব্যবসাতে টিকে আছেন তাদের মূল লভ্যাংশ চলে যাচ্ছে যারা বাল্ক অর্ডারে পন্য আমদানী করছেন তাদের কাছে। বর্তমানে ফেসবুক বিজ্ঞাপন খরচ বাদ দিলে ই-কমার্স ব্যবসাতে কতটা লাভ আসছে তা ব্যবসায়ি মাত্র অনুধাবন করতে পারছেন। আমরা যারা স্বল্প পুঁজির উদ্যোক্তা তারা কয়েকজনে মিলে কোন বিশেষ পন্য মাত্র এক ডজন করে অর্ডার করলেও তা বাল্ক অর্ডার হিসাবে ধরে ইন্ডিয়ান রপ্তানী কারক পন্য বাংলাদেশে সরবরাহ করতে প্রস্তুত আছে ইন্ডিয়ান হোল সেল রেট+(জি এস টি), পরিবহন। আমাদের বিশ্বাস যদি ১০ জন উদ্যোক্তা একত্রিত হয়ে গড়ে ১ ডজন করে মোট ১০ ডজন পন্যও নেয়া হয় তাহলে আমাদের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের অনেকটাই লভ্যাংশ বেঁচে যাবে এবং এইভাবে আমরা ধীরে ধীরে আমাদের নিজ নিজ বিজনেসকে প্রফিট্যাবল করতে পারবো।

 

তাছাড়া ই-কমার্স বিজনেসে প্রোডাক্ট উপস্থাপন করবার জন্য মান সম্মত ফটোগ্রাফি উপস্থাপন করা আবশ্যক। প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফির খরচ বিবেচনা করলে কোন একটি প্রোডাক্ট কম পক্ষে ১০০ পিস সেল হওয়া দরকার তবেই সেই খরচটা কম রাখা সম্ভব। ইন্ডিয়ার এমন কিছু পন্য আছে যার ফটোগ্রাফি বাংলাদেশে করলে ঐ পন্য সমুহ মানের দিক থেকে দেশের সেরা হবে নিঃসন্দেহে। সেহেতু একটা গ্রুপ বা কয়েকজনের একত্রিত প্রয়াস আবশ্যক। যদি ভালো গুনগত মানের পন্য ১০ জনে আনা হয় হয়তো কারো সেল বেশি হলো কারো কম হলো তাহলে যার কাছে পন্যটি বেঁচে যাচ্ছে তার থেকে ভালো সেলকারী সেল করতে পারবে সেক্ষেত্রে লভ্যাংশ শেয়ার করা যেতেই পারে সুবিধা জনক ভাবে। সব থেকে বড় বিষয় হচ্ছে নিজেদের কমিউনিকেট এর একটা শক্ত ভীত তৈরি হলে, একটা বিশ্বাসের স্থান তৈরি হলে এটা অবশ্যই ভালো হবে বলে বিশ্বাস করি তবে অবশ্যই সততার পরিচয় আমাদের থাকতেই হবে।

 

তেমনি বাংলাদেশে ক্ষুদ্র ও মাঝারী উৎপাদনকারীও আছেন যারা নিজেরা পন্য রপ্তানী করতে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হন। এক্ষেত্রেও এই সেমিনারে আমরা বিভিন্ন অনিবার্য সমস্যা ও সহজ সমাধানের বিষয়ে আলোচনা করবো।

 

দিনব্যাপী এই সেমিনারে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের আমদানি ও রপ্তানির বিভিন্ন খুঁটিনাটি সমস্যা নিয়ে বাস্তবসম্মত ও কার্যকরী সমাধান নিশ্চিত করণে আলোকপাত করা হবে। ক্ষুদ্র এবং মাঝারী উৎপাদনকারীগন এই সেমিনারে যোগদান করবেন বলে আশা রাখি। কেননা বাংলাদেশ থেকে আমরা স্বল্প পরিসরে পন্য আন্তর্জাতিক মান সমপন্ন ভাবে  রপ্তানি করতে পারলে ছোট এবং মাঝারী উদ্যোক্তগন লাভবান হবেন বলে বিশ্বাস। বড় ব্যবসায়ীদের দাপটে আমাদের ছোট উদ্যোগকে সফল করার জন্য সকলের আন্তরিকতা আবশ্যক। যে সব পন্য রপ্তানী প্রাধান্য পাবে তার বিবরন সাইন আপ লিস্টে দেয়া আছে।

 

আমাদের এই মিট আপে উপস্থিত থাকবেন আমদানী এবং রপ্তানী কারক অনিতা সাহা, অল মার্কেট বিডি’র আমন্ত্রনে তিনি কোলকাতা থেকে আসবেন। সেই সাথে সফল ইকমার্স বিজনেস এস্টাব্লিশ করতে আশু করণীয় পদক্ষেপসমূহ বিস্তারিত আলোকপাত করবেন ইকমার্স স্পেশালিস্ট (সার্টিফাইড) দেবজিৎ দত্ত।  আলোচনা অন্তে আগ্রহীদের সাথে কন্টাক্ট ফরম সাইন সহ আনুসঙ্গিক বিষয়াদি নিয়ে মত বিনিময় হবে।

 

  • একটি স্টার্টাপকে দাঁড় করাতে গেলে বহুকস্টের পথ পাড়ি দিতে হয়। উদ্যোক্তাদের স্বল্প  বিনিয়োগকে টার্গেট করে অনেকেই বিভিন্নমূখী ব্যবসা করে আসছে। উদ্যোক্তার লস হলে সেটা দেখার কেউ নেই।
  • আমরা যে সব প্রোডাক্ট চয়েস করবো তা আমাদের স্টকেই থাকবে সুতরাং স্পেশাল প্রোডাক্ট হিসাবে আমাদের গ্রহনযোগ্যতা তৈরি হবে নিঃসন্দেহে।
  • যাদের শোরুম আছে তারা স্পেশাল সুবিধা পেতে পারেন “অল মার্কেট বিডি’র” প্রোমোশনে (শর্ত প্রযোজ্য)।
  • আমাদের এই মিট আপে ফটোগ্রাফি কোম্পানী সমুহকে বিশেষ ভাবে আমন্ত্রন করা হচ্ছে। সুতরাং সকলের একসাথে মার্কেটিং উপোযোগী ফটোগ্রাফি করিয়ে নেবার বিশেষ সুবিধা পাওয়া সম্ভব।
  • ক্রেতা তার পছন্দমত পন্য অর্ডার করতে পারবেন। এই মিট আপ এর মাধ্যমে আলোচনা স্বাপেক্ষে একটি হোয়াটস এ্যাপ গ্রুপ তৈরি হবে শুধু মাত্র যারা এক মতে আসতে পারবেন তাদেরই জন্য। কেউ একজন কোন পন্য নিতে চাইলে তা সকলের দৃষ্টিগোচর হবে। ফলে অন্য কারো সেই পন্যের চাহিদা থাকলে এ্যাড করা সুবিধা হবে এবং একটা বাল্ক এ্যামাউন্ট অর্ডার হয়ে যাবে।
  • মিট আপ পরবর্তি কন্টাক্ট ফরম সাইন হবে। সকল প্রকার অর্থনৈতিক নিরাপত্তাজনিত বিষয়ে দায়বদ্ধতা বর্তাবে “অল মার্কেট বিডি’র” ওনার প্রশান্ত কুমার মন্ডল এর উপর। কন্টাক্ট ফরম সাইনের ব্যবসায়িক কাগকজ পত্র  সাথে  আনবার অনুরোধ রইল।
  • মিট আপ এন্ট্রি ফি (৫০০ টাকা) দুপুরের লাঞ্চ বাবদ নেয়া হচ্ছে।
  • আমরা আশা রাখছি এই মিট আপ পরবর্তি ফরমাল টু এক্সক্লুসিভ প্রোডাক্ট বাজারজাত করার জন্য একটি কার্যকরী ব্যবসায়ী গ্রুপ তৈরি হবে। সুতরাং ফটোগ্রাফি কোম্পানীদের কাজের একটা ক্ষেত্রও তৈরি হবে। যে সব ফটোগ্রাফি কোম্পানী বা মাঝারী উৎপাদন কারী প্রতিষ্ঠান স্পন্সর হয়ে মিটআপ এ্যটেন্ড করতে চান তারা ব্যানার তৈরির আগেই যোগাযোগ করুন।
  • এন্ট্রি টিকেট নিতে এখানে ক্লিক করুন

 

 

  • অর্গানাইজড বাইঃ  “All Market BD” প্রশান্ত কুমার মন্ডল, ঢাকা, বাংলাদেশ।

 

 

বিশেষ অতিথি :

 

  • দেবজিৎ দত্ত, ইকমার্স স্পেশালিস্ট (সার্টিফাইড), ঢাকা, বাংলাদেশ।
  • অনিতা সাহা, TexEx Export & Import, কোলকাতা, ইন্ডিয়া।